Breaking News

বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবে না ১৪-২১ এপ্রিল



করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী ১৪-২১ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষিধ আরোপ করেছে সরকার। এই সময়ে অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবে না বলে জানানো হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আজ সোমবার এমন নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আদেশ জারি করেছে।
নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত আদেশে বলা হয়, অতি জরুরি প্রয়োজন যেমন-ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন বা সৎকার ইত্যাদি ছাড়া বাড়ির বাইরে কোনোভাবেই বের হওয়া যাবে না। তবে করোনার টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়ত করা যাবে।

মন্ত্রিপিরষদ বিভাগ আদেশে জানায়, আগামী ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত এ বিধি-নিষেধ কার্যকর হবে। নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে মাঠে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

সব ধরনের পরিবহন বন্ধ
আগেই ঘোষণা দেয়া হলেও আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) ‘কঠোর লকডাউনের’ প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আগামী ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত দেশে সর্বাত্মক এই লকডাউন কার্যকর করা হবে। বন্ধ থাকবে সকল প্রকার পরিবহন।

প্রজ্ঞাপনের ‘গ’ নম্বরে বলা হয়েছে, সব ধরনের পরিবহন তথা সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। তবে এ আদেশ পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়া যেহেতু স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় শিল্প-কারখানাগুলো চালু থাকবে, সেক্ষেত্রে স্ব স্বপ্রতিষ্ঠান থেকে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থাপনায় শ্রমিকদের আনা-নেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনের একাংশে বলা হয়, অতি জরুরি প্রয়োজন যেমন-ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন বা সৎকার ইত্যাদি ছাড়া বাড়ির বাইরে কোনোভাবেই বের হওয়া যাবে না। তবে করোনার টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়ত করা যাবে।