Breaking News

চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে ৫ তলা ভবন



চট্টগ্রামের এনায়েত বাজার এলাকায় একটি পাঁচ তলা ভবন হেলে পড়েছে। এ ঘটনায় ওই ভবনের বাসিন্দাদের সরিয়ে নিতে তৎপরতা চালাচ্ছে পুলিশ।

শনিবার (১০ এপ্রিল) রাত পৌনে ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বিস্তারিত আসছে…

টিলা কেটে স্কুল নির্মাণ করছেন চেয়ারম্যান

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ইসলামপুর এলাকায় অবাধে টিলা কেটে স্কুল ও মসজিদ নির্মাণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে পরিবেশ অধিদপ্তর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে টিলা কাটার সত্যতা পেয়েছে।

রোববার (১১ এপ্রিল) সিলেট বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর কার্যালয়ে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

মৌলভীবাজার পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, ইসলামপুর এলাকায় স্থানীয় কিছু লোকজন অবাধে টিলা কেটে মাটি বিক্রি করছে বলে অভিযোগ আসে। সেই সঙ্গে আরও অভিযোগ পাওয়া যায়, ভাটেরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলাম এ এলাকার টিলা কেটে সমতল করে স্কুল ও মসজিদ নির্মাণ করছেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৩১ মার্চ মৌলভীবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের একটি দল এলাকা পরিদর্শন করে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের দেওয়া তথমতে, পরিদর্শনের সময় তারা দেখতে পান স্থানীয় কিছু লোকজন দীর্ঘদিন ধরে টিলার মাটি কেটে বিক্রি করছে। এছাড়া এ টিলার গায়ে মাটি কেটে গড়ে উঠেছে শতাধিক বসতিবাড়ি। এতে বিশাল আকৃতির টিলাটি একেবারে মাটি শূন্য হয়ে পড়েছে। এছাড়াও সৈয়দ একেএম নজরুল ইসলাম টিলার মাটি কেটে তার বাবার নামে একটি স্কুল ও মসজিদ নির্মাণ করেছেন।

এসব অভিযোগের সত্যতাসহ লিখিতভাবে মৌলভীবাজার পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তরের কাছে পাঠায়। সিলেট বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযুক্ত ভাটেরা ইউনিয়নর পরিষদ চেয়ারম্যানসহ এলাকার সাতব্যক্তির নাম উল্লেখ করে তাদের বরাবরে লিখিত নোটিশ জারি করেন।

রোববার (১১ এপ্রিল) ইউনিয়ন চেয়ারম্যানসহ নোটিশপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে এক শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

সিলেট বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর জানিয়েছে, এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে ভাটেরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এ এলাকায় ছেলে-মেয়েদের পড়ালেখার জন্য কোনো স্কুল নেই। স্কুলের স্বার্থে তিনি টিলার মাটি কেটে সমতল করেছেন। লোকজনের স্বার্থেই তিনি এ কাজ করেছেন।

এ ব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা সহকারি ভূমি কমিশনার নাজরাতুন নাঈম সাংবাদিকদের জানান, সরেজমিনে গিয়ে কাউকে টিলা কাটতে পাওয়া যায়নি। তবে স্থানীয় কিছু লোকজন বলছে, বেগুন বেগম নামে এক দিনমজুর মহিলা ও তার স্বামী টিলার মাটি কেটে বিক্রি করছেন।