মিষ্টিকে ভালোবেসে যেভাবে বিয়ে করেন ইমাম



২০২০ সালের শুরুতেই ভাইরাল হয় কুমিল্লার শামছুল হক শামু ও মরিয়ম আক্তার দম্পতী। ৮ম শ্রেণির ছাত্রী মরিয়মকে বিয়ে করে ৬০ বছরের রিকশাচালক শামু। তাদের ছবি সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ হওয়ার সাথে সাথে ভাইরাল হয়ে যায়।

ওই দম্পতিকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘বাবার সাথে ছবি’ বলে প্রচার হয়। কেউ বলে না তারা স্বামী স্ত্রী। রীতিমত হৈ-চৈ শুরু হয়। পরে মরিয়ম আক্তার নিজেই লাইভে এসে জানায় তারা স্বামী স্ত্রী।

২০২০ সালের শেষে এসে অসম বিয়ের কারনে এমনি একটি দম্পতী ভাইরাল হয়েছে। ওই দম্পতী হলেন টম ইমাম ও মিষ্টি। তাদের অনেকগুলো ছবি গত কয়েকদিন ধরে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে।
ছবিতে দেখা যাচ্ছে অল্প বয়সের এক তরুণীর সঙ্গে বয়ষ্ক একজন লোক। তারা স্বামী-স্ত্রী। তাতেই হলো ভাইরাল। অনেকের ধারনা বয়সে বেমানান হওয়ায় সবারই নজর কেড়েছে এই দম্পতির ছবি।

প্রথম বিবাহ বার্ষিকীতে তারা কেক কে’টেছেন। এই ছবিগুলো নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে চলছে নানা মতামত। কেউ কেউ এই দম্পতির ছবি বিশ্বাস না করে বলছেন নানা-নাতি মিলে ছবি তুলেছেন।

অনেকেই বলছেন বাবা-মেয়ে মিলে ছবি তুলেছেন। আরও বলছেন টাকা থাকলে কি না সম্ভব। তাদের ছবি মূহূর্তে ১০ হাজার লাইক ও শেয়ার হয়েছে। টম ইমাম নামের একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ছবিগুলো পোস্ট করা হয়।

জানা গেছে ওই ব্যাক্তির নাম টম ইমাম ও তার তরুণী স্ত্রীর নাম মিষ্টি। তিনি একজন বাংলাদেশী। বাংলাদেশেই তিনি শিক্ষা জীবন শেষ করেন। বর্তমানে তিনি আমেরিকার নাগরিক এবং সেখানে স্থায়ী ভাবে বসবাস করছেন।

তিনি এইচএসসি বাংলাদেশ পটুয়াখালী জুবলি হাইস্কুল থেকে শে’ষ করেন এবং ১৯৭৮-১৯৮২ শিক্ষাবর্ষে শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হতে গ্র্যাজুয়েশন শে’ষ করেন।

তবে ছবি ভাইরাল হওয়া ও নানা আলোচনার জবাব দিয়েছেন টম ইমাম। তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ছবি ভাইরাল ও নানা খারাপ মন্তব্যের প্রতিবাদ জানান। সেই সাথে তার পরিবারের অন্য সদস্যদের কিছু ছবিও পোস্ট করেন। তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য নিচে হুবহু তুলে ধরা হল-

তিনি তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন- কিছুদিন ধরে আমি লক্ষ করছি অনেক লোকজন আমাকে এবং আমার স্ত্রী কে ফেসবুক আইডি টা থেকে স্ক্রিনশট নিয়ে অনেক ছবি ভাইরাল করছেন এবং সাথে অনেক খারাপ কমেন্ট করছেন।

আমাকে আপনারা না যেনে এগুলো করা কি আপনাদের ঠিক হলো? অনেকে জানতে চাচ্ছেন টম ইমাম কে? তা হলে বলি, আমি একজন বাংলাদেশী এবং আমেরিকান নাগরিক। আমার আগের স্ত্রী ছিলো আমেরিকান এবং সে ১০ বছর অনেক অসুস্থ ছিল এবং ২০১১ সালে সে মা’রা গেছে।

আমি আর বিয়ে করি নাই আমার ছেলে মেয়েকে সিঙ্গেল বাবা হিসেবে মানুষ করেছি। ২০ বছর সেক্রিফাইস করেছি। তারপর আমি বাংলাদেশে বিয়ে করেছি। আমি আমার স্ত্রীকে ভালোবাসি এবং আমার স্ত্রী আমাকে ভালোবাসে।

ভালোবাসার কোন বয়স নাই। আপনি যদি হৃদয় থেকে কাউকে ভালবাসেন তবে প্রেম অন্ধ। আমি কিছু ছবি পোস্ট করছি এটাতে আমার ফ্যামিলি যেমন আমার মা, বাবা, বোন এবং বাচ্চারা আছে। সাথে আমার স্ত্রীর ছবিও দিলাম।

আমি যেমন আপনার পরিবারকে সম্মান করি তেমন দয়া করে আমার পরিবারকে শ্রদ্ধা করুন। আমি আশা করছি সবাই ভালো থাকবেন এবং সুন্দর দিন কাটান। সৃষ্টিকর্তা আমাদের সকলের ভালো করুক।