Breaking News

ভোটের ফল প্রকাশের আগে প্রার্থীর মৃত্যু



ভোট চলাকালীন খুলনার চালনা পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী মোঃ আবুল খায়ের খান মারা গেছেন। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) বি‌কেল সোয়া ৩টার দি‌কে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এর আগে সোমবার দুপুর পৌনে ২টায় ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন ধানের শীষ প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট আব্দুল মান্নান খান।

তিনি জানান, সাধারণ ভোটারদের ভোট জোরপূর্বক ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের প্রতীকে দিয়ে দেয়া ও ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের সহায়তায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ায় বিএনপি। সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণের পর থেকে চালনা পৌরসভার বিভিন্ন কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ তুলছিল বিএনপি নেতাকর্মীরা।

প্রসঙ্গত, প্রতীক বরাদ্দের দিন থেকে চালনা পৌরসভায় বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রার্থী আবুল খয়ের খান করোনা আক্রান্ত হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছি‌লেন। সোমবার বি‌কেল সোয়া তিনটার দি‌কে কর্তব্যরত চিকিৎসক তা‌কে মৃত ঘোষণা করেছেন।

রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল ৮টায় চালনা পৌরসভায় ভোটদান শুরু হয়। এই পৌরসভায় ১২ হাজার ১০০জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ৫ হাজার ৮৬৩ ও নারী ৬ হাজার ২৩৭জন ভোটার রয়েছেন। চালনা পৌরসভায় নয়টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হয়। এ নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন: আ.লীগ মনোনীত সনত কুমার বিশ্বাস, বিএনপি মনোনীত মোঃ আবুল খয়ের খাঁন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী অচিন্ত্য কুমার মন্ডল।

এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হওয়ায় বিএনপি প্রার্থী আবুল খয়ের খান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নয়টি সাধারণ ও সংরক্ষিত তিনটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ৩৭জন।