Breaking News

৩০ বছর ধরে ১ টাকায় সিঙ্গারা ফেরি করছেন তিনি



মাত্র ১ টাকায় সিঙারা, ভাবতেও পারেন না অনেকেই। ৫ টাকার নিচে তো সিঙ্গারা খুঁজে পাওয়াই আজকাল দুষ্কর। তবে কুষ্টিয়ার পোড়াদহের এক বৃদ্ধ দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে ১ টাকায় বিক্রি করছেন সিঙ্গারা।

দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্ধ্বগতির মধ্যেও ১ টাকার সিঙাড়া নাস্তার চাহিদা মেটাচ্ছে এলাকার শিশু ও সব বয়সের মানুষের। ১ টাকার শিঙাড়া বিক্রেতা মানুষটার নাম ছলেমান হোসেন। যিনি জীবনের ৭০ টি বছর অতিবাহিত করেছেন। এখন আমৃত্যু ১ টাকায় শিঙাড়া বিক্রি করে যেতে চান।

এলাকার লোকেরা তাকে চেনে ছলেমান চাচা নামেই। চিনবেনই না কেন, তিনি ৩০ বছর ধরে ১ টাকায় সিঙ্গারা বিক্রি করছেন।

মুচমুচে শিঙাড়া একটি কাঁচঘেরা বাক্সে ভরে তা ফেরি করেন ছলেমান। ছলেমানের শিঙাড়ার ভক্তরাও তার কাছ থেকে বছরের পর বছর ধরে ১ টাকায় শিঙাড়া কিনতে পেরে খুশি।

তিন সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে ছলেমানের সংসার। দুই ছেলে আলাদা সংসারে থাকেন। স্ত্রী ও মেয়েকে সঙ্গে নিয়েই তার বাস। দেশ স্বাধীনের পরের বছর থেকেই তিনি সিঙারা বিক্রির পেশায় নামেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়া হলেও তিনি চুয়াডাঙার বিভিন্ন ট্রেনে ফেরি করে সিঙ্গারা বিক্রি করেন।

সিঙ্গারার দাম না বাড়ানোর প্রসঙ্গে তিনি জানান, যাদের পাঁচ টাকা দামের সিঙ্গারা কেনার সামর্থ্য নেই, কিন্তু খেতে মন চায়, তাদের জন্যই দাম বাড়াইনি। গরিব ছোট ছোট শিশুদের কথা ভেবে দাম এক টাকাই রাখছি। যত দিন সিঙ্গারা বিক্রি করব, দাম এক টাকাই রাখব।

বর্তমানে প্রতিদিন ৮০০টি সিঙ্গারা তৈরি করেন ছলেমান। যা দুপুরের মধ্যেই বিক্রি হয়ে যায়। বিক্রি শেষে যা লাভ হয়, তা

দিয়েই চলে সংসার। সকাল ১০টার পর থেকে চুয়াডাঙ্গা শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার শিশু ও নারীরা ছলেমানের সুস্বাদু সিঙ্গারার অপেক্ষায় থাকেন।