Breaking News

‘সম্মতিতে শারীরিক সম্পর্ক, সম্পর্ক ভাঙলেই বলে ধর্ষণ’



প্রথমে মেয়েদের সম্মতিতেই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অধিকাংশ মেয়েরা প্রেমের সম্পর্ক ভাঙার পরেই ধর্ষণের মামলা করেন। ভারতের ছত্তীশগড়ের নারী কমিশনের প্রধানের এমন বক্তব্যে গতকাল শনিবার দেশটিতে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম ‘এই সময়’ জানায়, ভারতের মতো দেশে প্রতিদিন প্রতিটি রাজ্যেই নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের হয়। আবার বহু ঘটনা প্রকাশ্যেই আসে না দীর্ঘদিন। মেয়েটির আত্মহত্যা বা অভিযুক্তের দ্বিতীয়বার ধর্ষণের ঘটনার পর তা জানাজানি হয়, সেখানে দায়িত্বশীলদের এমন মন্তব্যে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

এদিন একটি সংবাদ সম্মেলনে যোগ দিয়ে ছত্তীশগড়ের নারী কমিশনের প্রধান কিরন্ময়ী নায়েক বলেছেন, যদি কোনও বিবাহিত পুরুষ কোনও মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ায়, তাহলে মেয়েটিকেই বুঝতে হবে যে লোকটি তাকে মিথ্যে কথা বলছে। যদি সম্পর্কটি ঠিকঠাক চলে তবে কোনও সমস্যা হয় না। সেটি না হলেই মেয়েরা অভিযোগ দায়ের করে।

তিনি বলেন, বেশিরভাগ সময়ই মেয়েদের সম্মতিতেই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। লিভ-ইন সম্পর্কেও থাকে। তারপর সম্পর্ক ভেঙে গেলেই ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে মেয়েরা। আমরা অনেক সময় মেয়ে ও ছেলেদের বকাবকিও করি। কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে আমরা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করি।

ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালে ভারতে প্রতিদিন ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা দায়ের হয়েছে। গোটা বছরজুড়ে নারীদের বিরুদ্ধে প্রায় ৪ লক্ষ নির্যাতনের অভিযোগ জমা পড়েছে। ২০১৮ সালের তুলনায় যা প্রায় ৭ শতাংশ বেড়েছে।