২ লিটার মদ পাওয়া গেল হোটেলে মৃত অভিনেত্রীর দেহে



গত শুক্রবার পুলিশ দরজা ভেঙে তার নিজ ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করে আরিয়ার রক্তাক্ত মরদেহ। জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর মৃত্যু রহস্য ঘিরে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।  

রোববার (১৩ ডিসেম্বর) পুলিশের হাতে এসেছে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন যেখানে বলা হয়েছে, হার্ট কিডনিসহ মাল্টি অর্গান ফেলিওর এবং লিভার সিরোসিস হয়ে মারা গেছেন এই অভিনেত্রী। 

‘মদ্যপ অবস্থায় বেসামাল হয়ে মাটিতে পড়ে মাথা ফেটে যায় আরিয়ার। এ সময় আঘাত পান ঠোঁট ও নাকে। এমনকি প্রায় ২ লিটারের মতো মদ মিলেছে আরিয়া বন্দ্যোপাধ্যায়ের মরদেহ থেকে।’ 

এর আগে, শুক্রবার(১১ ডিসেম্বর) মৃতদেহ উদ্ধারের সময় খাটের ওপর মেলে পান মশলার প্যাকেট। ঘটনার দিন আরিয়া খাটে বসে মধু মিশিয়ে ওয়াইন খাচ্ছিলেন, বলছে পুলিশ। 

এছাড়া, ঘর থেকে মিলেছে রক্তমাখা টিস্যু। চিকিৎসা সংক্রান্ত বেশ কিছু উদ্ধার হওয়া নথি থেকে জানা গেছে, বছর খানেক আগে হেপাটাইটিস বি তে আক্রান হন তিনি। সঙ্গে ছিল কিডনির সমস্যা। এত কিছুর পরেও আরিয়া কোনো চিকিৎসা নেননি বলে জানা গেছে ওই রিপোর্টে। 

প্রখ্যাত সেতারবাদক পণ্ডিত নিখিল বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোট মেয়ে আরিয়া বন্দোপাধ্যায়। যার প্রকৃত নাম দেবদত্তা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়েছেন হিন্দুস্তানি ধ্রুপদি সংগীতের ওপর। মুম্বাইয়ের অনুপম খের অ্যাকটিং স্কুল থেকে শিখেছেন অভিনয়ও। 

দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে বলিউডে পা দেন আরিয়া। তার প্রথম ছবি লাভ সেক্স অউর ধোঁকা। বিদ্যা বালানের সঙ্গে ডার্টি পিকচারে অভিনয় করেন তার পরের বছর। পাশাপাশি মডেল হিসেবে বেশ সুপরিচিত ছিলেন এই বলিউড তারকা।