Breaking News

টাকা ছিটিয়ে অনুদান দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের



এদিকে রাজধানীতে করোনাভাইরাসের ফলে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে টাকা ছিটিয়ে অনুদান দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোহাম্মদ এমদাদুল হক।

টাকা ছিটানোর কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভা’ইরা’ল হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা বলছেন, ত্রাণ বিতরণের নামে এমন আচরণ করে নাগরিকদের সঙ্গে তামাশা করা হয়েছে। সরকারের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তার এমন আচরণ কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

জানা গেছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব শাহ মোহাম্মদ এমদাদুল হক সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে ছিন্নমূল ও দরিদ্র মানুষের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করছেন।ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, আমি সায়েন্স ল্যাব থেকে ঢাকা কলেজ পর্যন্ত এলাকায় দরিদ্র মানুষকে অর্থ বিতরণ করেছি। এ সময় একজন পু’লি’শ অফিসারও ছিলেন। মানুষ আমার গাড়ির ওপর আছড়ে পড়ে। তখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে আমি আমার ড্রাইভারকে দ্রুত চলে যেতে বলি। কিন্তু আমরা যেতেও পারছি না। চারদিকে মানুষ। তখন আমার হাত গাড়ির বাইরে ছিল। একপর্যায়ে হাত থেকে টাকা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছি।

উল্লেখ্য বাংলাদেশে এ ভাইরাস শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। এরপর দিন দিন এ ভাইরাসে সং’ক্র’মণের সংখ্যা বেড়েছে। সর্বশেষ হিসাবে দেশে এখন পর্যন্ত ৫৬জন আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন, মা”রা গেছেন ছয়জন।

এ ভাইরাসের সং’ক্রা’মণ ঠেকাতে এরই মধ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েতের ওপর। চারটি দেশ ও অঞ্চল ছাড়া সব দেশ থেকেই যাত্রী আসা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আগামী ২৬ মার্চ থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সব ধরনের গণপরিবহন। এ কার্যক্রমে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার জন্য দেশের সব জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে স’শ’স্ত্র বাহিনী।

সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে করোনায় ক্ষ’তিগ্র’স্তদের সহযোগিতা দেয়ার আগে বিষয়টি পু’লিশকে জানাতে হবে। পু’লিশের সহযোগিতাও পাওয়া যাবে। বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন, বাংলাদেশ পু’লিশের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা।