হঠাৎ বিসিবি নির্বাচকদের জরুরি সভা

এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো দুটি বড় আসর স্থগিত হয়ে গেছে। তবে করোনার তীব্রতা কমলে স্থগিত হওয়া আন্তর্জাতিক সিরিজগুলো চালুর একটা সম্ভাবনা আছে। আর সবচেয়ে বড় কথা, ক্রিকেট এখন চলমান প্রক্রিয়া। খুব বেশি দিন ক্রিকেটীয় কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখারও সুযোগ নেই। কারণ মহাদেশীয় ও বিশ্ব আসর স্থগিত হয়ে গেলেও দ্বিপাক্ষিক সিরিজ কিন্তু চলছে। ইংল্যান্ডের সাথে টেস্ট খেলছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পাকিস্তান ক্রিকেট দলও এখন যুক্তরাজ্যে।

শ্রীলঙ্কাও ঘরে প্রস্তুত হচ্ছে। কাজেই একদমই কার্যক্রম বন্ধ রাখার অর্থ হলো, এরপর সবকিছু স্বাভাবিক হলে বাকিদের চেয়ে পিছিয়ে শুরু করতে হবে। সেই উপলব্ধি থেকেই যত দ্রুত সম্ভব জাতীয় দলের অনুশীলন ক্যাম্প শুরুর জোর চিন্তাভাবনা চলছে। জাতীয় দল পরিচর্যার দায়িত্বে থাকা ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যান আকরাম খানের উদ্ধৃতি দিয়ে গতকাল (মঙ্গলবার) জাগো নিউজে এক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

এবার তারই ধারাবাহিকতায় নড়েচড়ে বসেছে হাই পারফরমেন্স ইউনিট। জাতীয় দলের ভবিষ্যৎ পারফরমার তৈরি ও পাইপলাইন ঠিক রাখার মূল ক্ষেত্র এইচপি ট্রেনিং প্রোগ্রামও বন্ধ চার মাসের বেশি সময় ধরে। এইচপি পরিচালনা কমিটি প্রধান নাইমুর রহমান দুর্জয় যত দ্রুত সম্ভব হাই পারফরমেন্স ইউনিটের কোচিং প্রোগ্রাম চালু করতে বদ্ধ পরিকর।

আজ সন্ধ্যায় জাগো নিউজের সাথে আলাপে বিসিবির হাই পারফরমেন্স ইউনিট চেয়ারম্যান জানান, তারা চাচ্ছেন মাসখানেকের ভেতরে এইচপি ট্রেনিং আবার শুরু করতে। দুর্জয়ের কথা, ‘এইচপি ট্রেনিং প্রোগ্রাম দেশের ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ পারফরমারদের বেড়ে ওঠা ও জাতীয় দলের পাইপলাইন ঠিক রাখার অতি গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্র। সেটা আর আর কতদিন বন্ধ থাকবে? আমরা আর কতকাল বসে থাকব? এখন যত তাড়াতাড়ি শুরু করা যায়, সেটাই লক্ষ্য।’

সেই লক্ষ্য সামনে রেখেই আজ বুধবার বিকেলে বিসিবিতে হাই পারফরমেন্স ইউনিট, গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি, নির্বাচক এবং বিসিবির শীর্ষ পর্যায়ে এক গুরুত্বপূর্ণ যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এইচপি চেয়ারম্যান নাইমুর রহমান দুর্জয়, গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটি প্রধান খালেদ মাহমুদ সুজন, বিসিবি সিইও নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন, এইচপি ম্যানেজার জামাল বাবু, গেম ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার কাওসার ছাড়াও এ বৈঠকে জাতীয় দলের দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আর হাবিবুল বাশারও উপস্থিত ছিলেন।

সভার বিষয়বস্তু নিয়ে জাগো নিউজের সাথে আলাপে এইচপি চেয়ারম্যান নাইমুর রহমান দুর্জয় বলেন, ‘কীভাবে এবং কত দ্রুত হাই পারফরমেন্স ইউনিট কোচিং প্রোগাম আবার শুরু করা যায়, আমরা তা নিয়েই আমরা বসেছিলাম আজ।’