Breaking News

যারা এক মাস রোজা রাখবেন, তাদের সবাইকে রমজান মোবারক : মমতা ব্যানার্জী



মাহে রমজানের শুভেচ্ছা, সঙ্গে ঘরে থাকার আবেদনও। জননিরা’পত্তার স্বার্থে এ বারের রমজানে ঘরে থেকেই প্রার্থনা করার আহ্বান জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা

ব্যানার্জী। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। শুধু ভারত নয়, আরও অনেক দেশই লকডাউনে যেতে বাধ্য হয়েছে।

এই লকডাউন কবে উঠবে, নি’শ্চিত নন কেউই। কিন্তু সে সবের মাঝেই এসেছে রমজান মাস। আর এ বার যে হেতু পরি’স্থিতি স্বাভাবিক নয়, সে হেতু রমজানে জমায়েত এড়িয়ে

চলার পরামর্শই পরোক্ষ ভাবে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। শুক্রবার সকালেই টুইট

করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। তিনি লিখেছেন, ”সবাইকে রমজান মোবারক! এই পবিত্র মাস হল আত্মমন্থন এবং পুনর্নবী’করণের সময়। যারা এক মাস রোজা রাখবেন, তাদের প্রত্যেককে আমার শুভেচ্ছা।”

তবে শুভেচ্ছাবার্তা এটুকুতেই শেষ করেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, ”জননিরা’পত্তার স্বার্থে, একটা স্বাস্থ্যকর, ভাইরাস-মুক্ত সমাজ নি’শ্চিত করার স্বার্থে,

আমার বিনীত আবেদন যে, এ বছর আমরা ঘরে বসেই সর্বশক্তিমানের কাছে প্রার্থনা করি।” দেশে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার আগে থেকে জমায়েত এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া শুরু করেছিল প্রশাসন।

ফলে স্কুল-কলেজে একে একে ছুটি ঘোষণা করা হচ্ছিল, হোস্টেল খালি করে দেওয়া হচ্ছিল। মন্দির, মসজিদসহ সব ধর্মস্থানে জমায়েত না করার অনুরো’ধও প্রশাসনের তরফ

থেকে করা হচ্ছিল। লকডাউন ঘোষিত হওয়ার পর থেকে সে সব বিধিনিষেধ আরও ক’ঠো’র ভাবে রূপায়ণের চেষ্টা করা হচ্ছে। গত কয়েক দিন ধ’রে মুখ্যমন্ত্রী মমতা

কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় নিজেই যাচ্ছেন এবং মাইক্রোফোন হাতে তুলে নিয়ে এলাকাবাসীকে ঘরে থাকা এবং লকডাউনের নিয়মকানুন ঠিক মতো মেনে চলার আবেদন জানাচ্ছেন।

এ বার রমজানের শুভেচ্ছা জানাতে যে টুইট করলেন, তাতেও ঘরে থাকার বার্তা জুড়ে দিলেন তিনি। রমজান মাসে রোজ সন্ধ্যা নাগাদ ইফতারের আয়োজন হয়। যারা রোজা

রাখেন, তারা সারা দিনের রোজা ভেঙে খাওয়া দাওয়া সেরে নেন ওই সময়ে। ইফতার

উপলক্ষে বিভিন্ন এলাকায় জমায়েত দেখা যায়। তা ছাড়া তারাবি নমাজ উপলক্ষেও জমায়েত হয় মসজিদে মসজিদে। এ বার সেই সব জমায়েত এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছে প্রশাসন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতাও তার শুভেচ্ছাবার্তায় ঘরে থেকে প্রার্থনা করার আহ্বানই জানালেন। টুইটে

মমতা লিখেছেন, ”আসুন এই পবিত্র মাসে আমরা পরস্পরকে প্রতিশ্রুতি দিই, অতিমা’রির বি’রু’দ্ধে ল’ড়তে আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়িয়ে থাকব এবং শান্তি ও সাম্প্রদা’য়িক সম্প্রীতি সর্বদা র’ক্ষা করব।”