ডা. জাহানারা আরজু, ফ্রিতে টেলিমেডিসিন সেবা দিয়ে যাচ্ছি, আমার নাম্বার: ০১৮১৯-২২২৮৫৪



করোনাভাইরাসের সঙ্গে ল’ড়ছে বিশ্ব। এই ল’ড়াইয়ে প্রথম সারিতে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। ডা. জাহানারা আরজু তাদের একজন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল

বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) কার্ডিওলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. জাহানারা আরজু রোগীদের মুঠোফোনে চিকিৎসা-পরামর্শ দিচ্ছেন।

বুধবার ফেসবুকে ডা. জাহানারা আরজু লিখেছেন, বাংলাদেশ থেকে ইন্ডিয়াতে টেলিমেডিসিন সার্ভিস ছিলো। ঢাকার একটা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চেন্নাই এপোলো হসপিটালের টেলিমেডিসিন সেন্টার ছিলো। ফি রাখা হতো ৮০০০/ (আট হাজার টাকা)।

ঢাকার এপোলোতে (এভার কেয়ার হাসপাতালে) এখন টেলিমেডিসিনের জন্য ১৪০০ টাকা

নিচ্ছে। সম্প্রতি সিলেটের এক গায়নোকলিজিস্ট নাকি টেলিমেডিসিনে ৮০০/- ফি নিয়েছেন, এ জন্য তিনি কেন এত সমালোচিত?

কেনো ভাই, কেউ ফি নিলে আপনার পোষালে ফোন দেবেন। না পোষালে আমরা যারা ফ্রি চিকিৎসা দিচ্ছি তাদেরকে ফোন করেন। খামোখা কেন সমালোচনা করবো আমরা?

প্রতিদিন কত জনকে ফ্রিতে টেলিমেডিসিন সেবা দিয়ে যাচ্ছি। আমার নাম্বার: ০১৮১৯-২২২৮৫৪। মেডিসিন ও কার্ডিওলজির রোগীরা প্রয়োজনে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২ টার মধ্যে ফোন করতে পারেন।

করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অবস্থান অনেক ভালো: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
মহামারী করোনাভাইরাস শুরুর ৪৫ দিনে দেশে ও দেশের বাইরে সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে একটু তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। শনাক্ত ও মৃত্যুর হার বিবেচনা করলে বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে আছে বলেও দাবি করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে তিনি এ তথ্য দেন।

এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, আক্রান্ত হওয়ার ৪৫ দিনের মাথায় বাংলাদেশে ৩ হাজার ৭৭২ জন। মৃত্যুবরণ করেছে ১২০ জন। ইতালিতে ৪৫ দিনে ১ লাখ ২৬ হাজার, মৃত্যুবরণ করেছে প্রায় ১১ হাজার। স্পেনে আক্রান্ত হয়েছিল ১ লাখ, মৃত্যুবরণ করেছে ১০ হাজার। আমেরিকায় আক্রান্ত হয়েছিল ১ লাখ বিশ হাজার, মৃত্যুবরণ করেছে ২৪ হাজার।

তিনি আরও বলেন, এই তুলনা করলে ৪৫ দিনে বাংলাদেশের অবস্থান অনেক ভালো।