করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়েছেন যুবক



করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে আসা এক রোগী দিনাজপুরের বিরামপুর হাসপাতাল থেকে পালিয়েছেন। ওই যুবক (২০) করোনা টেস্টের জন্য গেলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তার উপসর্গ দেখে তাকে আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করতে বললে পালিয়ে যান তিনি।

মঙ্গলবার (২২ এপ্রিল) বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনাটি ঘটে। পালিয়ে যাওয়া ওই যুবক হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার বাসিন্দা।

জানা গেছে, কিছুদিন আগেই ঢাকার গাজীপুর থেকে গ্রামে ফিরে আসেন ওই যুবক। এদিকে তার পালিয়ে আসায় হাসপাতাল থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে আরও অনেকে সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোলায়মান হোসেন মেহেদী জানান, ওই যুবক গত তিন দিন আগে জ্বর ও কাশি নিয়ে গাজীপুর থেকে নবাবগঞ্জ উপজেলায় তার বোনের বাড়িতে যান। কিন্তু করোনার উপসর্গ থাকায় গত সোমবার তাকে হিলিতে তার নিজ বাড়িতে পাঠিয়ে দেন তার বোন। মঙ্গলবার বিকেলে জ্বর ও কাশি নিয়ে বিরামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকের কাছে আসেন তিনি।

ডা. সোলায়মান হোসেন মেহেদী আরও জানান, আইসোলেশনে ভর্তি হওয়ার কথা শুনেই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় ওই যুবক। পরে বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক হাকিমপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদকে ও হাকিসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে জানানো হয়।

হাকিমপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ হারুন জানান, বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে আমাদের বিষয়টি জানানো হয়েছে। আমরা থানা পুলিশকে জানিয়েছি। তবে ওই যুবকের বাড়ির ঠিকানা সঠিক না থাকায় হাসপাতাল থেকে দেয়া ঠিকানায় আমরা তাকে খুঁজে পাইনি। তবে আমাদের প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে উদ্ধারের অভিযান অব্যাহত আছে।