Breaking News

হাসপাতালে ভর্তির ১৫ মিনিট পর ব্যবসায়ীর মৃত্যু, বাড়ি লকডাউন

আজ সকালে জ্বর, কাশি, সর্দি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তির ১৫ মিনিট পর এক সুপারি

ব্যবসায়ীর মৃ;;ত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মৃ;;তের বাড়ি পুলিশ লাল

পতাকা টানিয়ে লকডাউন ঘোষণা করেছে। আজ বুধবার সকালে জেলা প্রশাসনের নির্দেশে পুলিশ শহরের দক্ষিণ নড়াইলের বাড়িটি লকডাউন করে সচেতনতামূলক মাইকিং করে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে নড়াইল সদর হাসপাতালে শহরের দক্ষিণ

নড়াইলের ওই সুপারি ব্যবসায়ী মারা যান। মৃ’;ত্যুর পর নমুনা সংগ্রহ ছাড়াই রাত ১টার দিকে

তড়িঘড়ি করে গোসল ও জানাজা ছাড়াই দক্ষিণ নড়াইল কবরস্থানে পুলিশের উপস্থিতিতে দা;;ফন করা হয়।

এদিকে স্থানীয়রা জানিয়েছেন মৃ;;তের মা এবং ভাই প্রায় একই ধরনের উপসর্গে অসুস্থ হয়ে বাড়ি রয়েছেন। মৃ;;ত ব্যক্তির আত্মীয় জানান, সুপারি ব্যবসায়ী শওকত এক সপ্তাহ আগে জ্বর,

কাশি, সর্দি, শ্বাসকষ্ট, শরীর ব্যাথা ও বমিসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ

সময় পরিবারের পক্ষ থেকে করোনা সংক্রান্ত হটলাইনে ফোন করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এরপর স্থানীয়ভাবে একটি প্রাইভেট চেম্বারে ডাক্তার দেখিয়ে অবস্থার কোনো উন্নতি না হওয়ায় মঙ্গলবার রাত পৌনে ৯টার দিকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভর্তির পর প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ওয়ার্ডে নেয়ার সময় মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই মৃ’;ত্যু হয়।

এ ব্যাপারে সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. তৌহিদুল হাসান তুহিন বলেন, রোগী শ্বাসকষ্ট ও বমির উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হন।

এদিকে সদর হাসপাতালের আরএমও মশিউর রহমান বাবু দাবি করেন, মিনি স্ট্রোকে শওকতের মৃ;;ত্যু হয়েছে।

তবে সাবেক সিভিল সার্জন ডা. আসাদ উজ-জামান মুন্সী বলেন, মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে মিনি স্ট্রোকে রোগী মা;;রা যাওয়ার কথা নয়।