Breaking News

গভীর রাতে চট্টগ্রামের হাজারো স্বাস্থ্যকর্মী পাবেন সেহেরীর খাবার



ক’রোনা ভাই’রাসের কা’রণে সং’কটময় পরিস্থিতিতে শুরু থেকেই বিভিন্ন মানবিক কার্যক্রম করে আলোচনায় আসেন রাউজানের তরুণ রাজনীতিবিদ ফারাজ করিম চৌধুরী।এমতাবস্থায় ক’রোনা যু’দ্ধে প্রাণ হা’রানো প্রথম চিকিৎসক ডাঃ মঈনের স্মৃ’তির প্রতি ভালবাসা জানিয়ে চট্টগ্রাম শহর জুড়ে আরো একটি ব্যতিক্রমী মানবিক কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছেন তিনি।

পবিত্র রমজান মাস জুড়ে চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত হাজারো স্বাস্থ্যকর্মীদের নিকট রাউজানবাসীর পক্ষ থেকে সেহেরীর খাবার পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়েছেন তিনি।জানা যায়,রমজান মাসে রাউজান থেকে প্রতিদিন প্রায় ২ হাজার মানুষের জন্য সেহেরীর খাবার চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হবে।

চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নিকট এসব খাবার পৌছে দেওয়া হবে।পথিমধ্যে রাস্তাঘাটে দায়িত্ব পালন করা আ’ইনশৃ’ঙ্খলা র’ক্ষাকা’রী বাহিনীর সদস্য,পথচারী ও ছি’ন্নমূ’ল মানুষদের কাছেও পৌঁছে দেওয়া হবে সেহেরীর খাবার।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ফারাজ করিম চৌধুরী বলেন,আমরা জাতি হিসেবে নতুন কোন ইস্যু পেলে পুরনোগুলো ভু’লে যাই।দেশের এই পরিস্থিতিতে ক’রোনা যু’দ্ধে প্রাণ হা’রানো প্রথম চিকিৎসক ডাঃ মঈন উদ্দিনের স্মৃ’তি ধরে রাখার জন্য তার প্রতি ভালবাসা জানিয়ে এই ম’হামা’রীর সম্মুখ যো’দ্ধা তার সহকর্মী অন্যান্য নার্স

ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নিকট সেহেরীর খাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য আমরা রাউজানবাসীর সহযোগিতার মাধ্যমে উদ্যোগ নিচ্ছি। দেশের মানুষের নিরাপত্তার জন্য রাত জেগে দায়িত্ব পালন করা আ’ইনশৃ’ঙ্খলা র’ক্ষাকারী বাহিনীর ভাইদের নিকটও আমরা সেহেরীর খাবার পৌঁছে দিতে চাই।

পাশাপাশি অন্যান্য পথচারী ও রাস্তায় থাকা মানুষদের কাছেও খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে।রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন,বর্তমান পরিস্থিতিতে সবচেয়ে কঠিন দায়িত্ব পালন করছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাদের কথা চিন্তা করে ফারাজ করিম চৌধুরী যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা প্রশংসনীয়।

এই কার্যক্রমে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা থাকবে।রাউজানের সর্বস্তরের জনসাধারণের ব্যবস্থাপনায় ও রাউজান উপজেলা প্রশাসন এর সার্বিক সহযোগিতায় এই কার্যক্রমের তত্ত্বাবধানকারী রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ কেফায়েত উল্লাহ বলেন,সেহেরীর খাবারের এই কার্যক্রমটি পরিচালনা করার জন্য এরই মধ্যে রাউজান পৌরসভার জানালীহাট

ও ৯ নং ওয়ার্ডে ২ টি রান্নাঘর প্রস্তুত করা হয়েছে। ঠিক করা হয়েছে ১০ জন বাবুর্চি। খাবার বিতরণের জন্য থাকবে ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবী। তাদের সকলের নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত গ্লাভস ও মাস্ক সংগ্রহ করা হয়েছে। চাল, ডাল, তেল, আলু সহ অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য আমরা মওজুদ করছি।

সুত্র:সময়ের কন্ঠস্বর